ঘূর্ণিঝড়ে জেলায় ব্যাপক ক্ষতি, বিভিন্ন ব্লকে ভাঙল বাড়ি, মৃত ১, আহত ১৪

0
865

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ উড়িষ্যা ও অন্ধ্র জুড়ে তান্ডব চালানোর পর ক্ষমতা হারিয়েছে ঘূর্ণিঝড় তিতলি। কিন্তু তার প্রভাবে উড়িষ্যা ও বাংলার বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে ঘনীভুত হয়েছে জোরাল নিম্নচাপ।
শুক্রবার এই নিম্নচাপ থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ার দাপটে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায়। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এদিন খড়্গপুরে ঝড়ের দাপটে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম ইলিয়াস মল্লিক (৩৮)। এছাড়াও আরও ১০ জন জখম হয়েছেন বলে জানা গেছে।
এরই পাশাপাশি ঝড়ের ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেপশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়ি ব্লকের একাধিক গ্রাম। এদিন নছিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের চারটি গ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে ব্যাপক ঘূর্ণি ঝড়। যার জেরে উপড়ে পড়েছে বহু গাছ। উল্টে গিয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি।
এছাড়াও ওই এলাকায় কাঁচা বাড়ির দেওয়াল চাপা পড়ে চারজন আহত হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। আহতদের উদ্ধার করে কেশিয়াড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।
অন্যদিকে ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইল ব্লকের রোহিনি সহ কয়েকটি গ্রামের ওপর দিয়ে ঘুর্ণিঝড় বয়ে গিয়েছে এদিন। এর জেরে ভেঙে গিয়েছে একটি পুজো প্যাণ্ডেল।
এরই পাশাপাশি এদিন ঝড়ের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শালবনীর সাতপাটি এলাকা। প্রায় ৫ থেকে ৬ টি কাঁচা বাড়ি ভেঙে পড়েছে এই এলাকায়। এছাড়াও প্রায় কুড়িটি বাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বহু গাছ পড়ে গিয়েছে রাস্তার ওপর।
এছাড়াও একটানা বৃষ্টিপাত হয়েই চলেছে। পুজোর মুখে এমন দুর্দশায় চূড়ান্ত আতংকে কাটাচ্ছেন এলাকাবাসীরা।
পশ্চিম মেদিনীপুর খড়্গপুরে তিতলির পৃথিবীর দাপটে মৃত্যু হল এক ব্যক্তি এক ব্যক্তি ইলিয়াস মল্লিক নামে এক ব্যক্তি এর পাশাপাশি কলাইকুন্ডা কেশিয়াড়িতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে আহত হয়েছে প্রায় গুরুতর আহত অবস্থায় এখনো খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি ১৪ জন।

তিতলির প্রভাবে তৈরি হওয়া স্থানীয় একটি ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হল পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়ি ব্লকের একাধিক গ্রাম। নছিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের চারটি গ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে যায় ঘূর্ণিঝড়। ভেঙে গিয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি। ভেঙে পড়েছে গাছ-সহ বিদ্যুতের খুঁটি। দেওয়াল চাপা পড়ে আহত হয়েছেন চারজন। তাদের কেশিয়াড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
অন্যদিকে ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইল ব্লকের রোহিনিতেও ঘুর্ণিঝড় বয়ে যায়। ভেঙে গিয়েছে একটি পুজো প্যাণ্ডেল।