নরেন্দ্র মোদী মানুষকে দুর্দশায় ঠেলে দিয়েছেন, তাঁর বিদায় আসন্নঃ সৌমেন

0
573

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ এবারের লোকসভা ভোটে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিনাশ ঘটবে এবং যিনি মানুষকে আচ্ছে দিনের স্বপ্ন দেখিয়ে ৫ বছর আগে ভোট নিয়ে তাঁদের দুদর্শা আর দুর্দিনে ঠেলে দিয়েছেন তিনি বিদায় নেবেন বলে জানান মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। তিনি অাজ অারামবাগ লোকসভার তৃণমূল প্রার্থী অপরূপা পোদ্দারের সমর্থনে চন্দ্রকোনা বিধানসভার মহেশপুরের জনসভায় একথা বলেন। তিনি অারও বলেন, এই মহেশপুর এলাকা সিপিএমের অামলে যখন সন্ত্রস্ত ছিল তখন বিজেপি কর্মীদের এলাকায় দেখা যায়নি। এই সরকারের অামলে গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে এবং উন্নয়নের জেয়ার বইছে তাই বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার কথা বলেন তিনি। মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র অারও বলেন, বাংলার কৃষ্টি, সংস্কৃতি, সাম্প্রদায়িক সংহতিকে ভাঙতে চাইছে বিজেপি এই অভিযোগ করে বলেন, ‘একটা বিভেদকামী রাজনৈতিক দল যারা সবসময় মানুষে মানুষে বিভেদ করতে চায়, তাদের হাতে দেশের ঐক্য, সংহতি, অখন্ডতা, ধর্মনিরপেক্ষতা কোনো কিছুই সুরক্ষিত নয়।’ ধর্মের জিগির তুলে আর মিথ্যে কথা বলে ভোটারদের বিভ্রান্ত করে বিজেপি নেতারা ভোট চাইছেন বলে তিনি জানান।

মমতা ব্যানার্জি দেশের মধ্যে প্রথম মুখ্যমন্ত্রী যিনি কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রী, সবুজসাথী, ২ টাকা কেজি চাল, গৃহহীনদের মাথার ওপর ছাদ, লোকশিল্পীদের ভাতা, সহ ৪৭ টি প্রকল্প চালু করেছেন বলে এর ব্যাখ্যা করে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘এলাকার বিজেপির কর্মী সমর্থকদের জিজ্ঞেস করুন বিজেপি কি দিয়েছে? নোট বন্দির ক্ষত ? জিএসটির যন্ত্রনা, আচ্ছে দিনের দুঃস্বপ্ন, দেশজুড়ে অস্তিরতা, বিভেদ’।

অাজকের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন চন্দ্রকোনার বিধায়ক ছায়া দোলই, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী, জেলা নেতা গোপাল সাহা প্রমুখ।