মাওবাদীদের হাতে খুন হওয়া পরিবারকে চাকরি দেওয়ার দাবিতে অবস্থান-বিক্ষোভ

0
231

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ মাওবাদী হামলায় মৃত পরিবারের সদস্যদের চাকরি ও নিখোঁজ ব্যাক্তিদের মৃত বলে ঘোষণা করতে হবে। সোমবার এই দাবিতে ঝাড়গ্রাম জেলা শহরের জামদা থেকে মিছিল পাঁচমাথা মোড় হয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের অফিসের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ দেখাল মৃত ও নিখোঁজ ব্যাক্তিদের পরিবারের লোকজন। এই অবস্থান বিক্ষোভে ছিলেন পুরুষ ও মহিলারা। ইতিমধ্যে তাঁরা শহিদ ও নিখোঁজ পরিবারের যৌথ মঞ্চ গঠন করেছে। এমনকি তাঁদের দাবি না মানা হলে বৃহত্তর অন্দোলনে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন তাঁরা। তাঁদের অভিযোগ, ক্ষমতায় আসার পরে মুখ্যমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মাওবাদীদের হাতে নিহত প্রত্যেক পরিবারকে চাকরি দেওয়া হবে।

কিন্তু হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়াও অধিকাংশ জনই কিছুই পায়নি। কিন্তু যেসব মাওবাদীরা খুন করল তাঁরা এখন চাকরি পেয়ে বহাল তবিয়তে রয়েছে। অথচ যাঁদের পরিবারের লোকজন মারা গেল বা নিখোঁজ হয়েছেন তাঁরা এখনও কিছুই পায়নি। জঙ্গলমহলে অশান্তি পর্বের সময় মাওবাদীরা অনেককে খুন করেছে। আবার অনেককে তুলে নিয়ে গিয়েছে। তাঁরা এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। আট থেকে দশ বছর হয়ে গেলেও তাঁদের কোনও খোঁজ নেই। হাতে গোনা কয়েকটি পরিবার সরকারি চাকরি বা ক্ষতিপূরণ পেলেও অধিকাংশ পরিবারের লোকজন কিছুই পায়নি বলে অভিযোগ।

এদিন শহিদ ও নিখোঁজ পরিবারের যৌথমঞ্চ-এর সদস্যরা ঝাড়গ্রাম জেলা শহরে মিছিল করেন। মিছিলে প্রায় ৭০০ এর উপর মহিলা ও পুরুষ প্ল্যাকার্ড হাতে জেলা শাসকের অফিসের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করেন। এমনকি চাকরি ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিতে স্লোগানও দিতে থাকেন। তারপরে তাঁরা জেলা শাসক আয়েষা রানী-র কাছে ১২ দফা দাবির একটি স্মারকলিপি জমা দেন। মূলত তাঁদের দাবি, শহিদ পরিবারকে একটি করে সরকারি চাকরি দিতে হবে। নিখোঁজ ব্যাক্তিদের মৃত বলে ঘোষণা করতে হবে। কেন্দ্র থেকে দশ লক্ষ টাকা ও রাজ্য থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।