ক্রিকেটার শচীনের কন্যাকে ফোনে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে শ্রীঘরে মহিষাদলের যুবক

0
108

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ ক্রিকেটার শচীন তেন্ডুলকারের মেয়ে সারাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে মুম্বাই পুলিশের হাতে গ্রেফতার হল এক যুবক। দেবকুমার মাইতি নামের এই যুবককে রবিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মহিষাদল থেকে গ্রেফতার করে মুম্বাই পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ।

পেশায় চিত্রশিল্পী হওয়ার সুবাদে দেবকুমারকে মহিষাদলের মানুষ কম বেশি সবাই চেনেন। সেই দেবকুমারকে ধরতে রবিবার সকালে মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চের কয়েকজন অফিসার মহিষাদলে পৌঁছতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। এরপর মহিষাদল পুলিশের সাহায্য নিয়ে মুম্বাই পুলিশ গ্রেফতার করে অভিযুক্তকে। মহিষাদল থানার ওসি পার্থ বিশ্বাস জানিয়েছেন মুম্বাই পুলিশের থেকে জানা গিয়েছে গত ৫ তারিখ বান্দ্রায় অভিযোগ দায়ের করেছেন শচীন । তাঁর অফিসে ও মেয়ের ফোনে বারবার ফোন করে বিরক্ত করা হচ্ছে। অভিযোগ পেয়ে সেই নম্বর ট্র্যাফ করে মুম্বাই পুলিশ দেবকুমারের সন্ধান পায়। তারপরেই মহিষাদলে অভিযান চালায় মুম্বাইয়ের স্পেশাল ক্রাইম ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা । বাড়ির লোকেদের অবশ্য দাবি গত কয়েকমাস ধরে মানসিক রোগে আক্রান্ত দেবকুমার । এর জেরে কয়েকদিন আগে নিজের গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে সে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গত কয়েকমাস ধরে দেবকুমার সারা তেন্ডুলকারকে বিয়ে করার কথা জানিয়েছে তাদের। দেবকুমারের মানসিক রোগের কথা ভেবে সেই বিষয়টাকে তাঁরা হাসিমস্করা করা উড়িয়ে দেন। স্থানীয়েদের বক্তব্য, দেবু যে এমন ঘটনা ঘটিয়ে বসতে পারে স্বপ্নেও ভাবেনি তাঁরা । প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে মুম্বাইতে থাকা এক আত্মীয়ের কাছ থেকেই শচীন ও সারার নম্বর জোগাড় করেছিল দেবকুমার । ছেলের এই পাগলামির জেরে তৈরি হওয়া আইনি সমস্যা থেকে কীভাবে রক্ষা পাওয়া যায় তাই নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় বাড়ির লোকেরা । জানা গিয়েছে, তিনদিনের ট্রানজিট রিমান্ডে দেবকুমারকে নিয়ে গিয়েছে সেখানকার পুলিশ।