পূর্ণাপানি গ্রামে বিধানসভার কংগ্রেস ও বাম পরিষদীয় দল, খাড়া করলেন অনাহার তত্ত্ব

0
550

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ আদিম জনজাতির জন্য কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিশেষ সুবিধা ও বিভিন্ন প্রকল্প থাকা সত্ত্বেও পূর্ণাপানি শবর পরিবারগুলিকে বঞ্চিত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করলেন বিধানসভার কংগ্রেস ও বাম পরিষদীয় প্রতিনিধি দল। শনিবার পরিষদীয় দলের প্রতিনিধিরা লালগড়ের পূর্ণাপানি গ্রামে গিয়েছিলেন লোধা শবর মানুষজনদের মৃত্যুর কারণ খুঁজতে। এদিন কংগ্রেস ও সিপিএমের ৮ জনের প্রতিনিধি দল ঐ গ্রামে গিয়ে মৃত লোধা শবর পরিবারগুলির সঙ্গে কথা বলেন। পরে প্রতিনিধি দলের সদস্যরা সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন, পূর্ণাপানি গ্রামে শবরেরা না খেতে পেয়ে অনাহারে মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি দলের প্রতিনিধিরা জানান আগামী সোমবার বিধানসভায় অধিবেশনে বিষয়টি তোলা হবে। তাঁদের বক্তব্য আদিম জনজাতি শবর সম্প্রদায় ভুক্ত মানুষগুলির জন্য যে প্রকল্প রয়েছে সেই বিষয়ে নজর বা দেখভাল করার দায়িত্ব এই সরকারেরই। দলে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ছিলেন অসিত বরণ মিত্র, সুদীপ মুখোপাধ্যায়, সুখবিলাস বর্মা, এবং বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে খগেন মুর্মু, সুজিত চক্রবর্তী, প্রদীপ সাহা, শ্যামলী প্রধান, প্রাক্তন সাংসদ পুলিন বিহারী বাস্কে প্রমুখ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। সরকারি প্রকল্পে তাঁরা কিছু সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন। সরকারি প্রকল্পে বাড়ি, শৌচাগার সহ অন্যান্য সুবিধা তাঁরা পান কিনা সব জানতে চান তাঁরা। কংগ্রেসের অসিত বরণ মিত্র বলেন, এখানে অনাহারেই মৃত্যু হয়েছে। এখানে খাদ্য, বাসস্থান, চিকিৎসার কোনও ব্যবস্থা নেই। আদিম জনজাতিদের জন্য কেন্দ্র ও রাজ্যের বিশেষ প্রকল্প রয়েছে। শবর সম্প্রদায় আদিম জনজাতিভুক্ত, এরা সেই পরিষেবাগুলি পান না। আমরা সোমবারই এই বিষয়টি নিয়ে বিধানসভায় তুলব।

সিপিএমের ঝাড়গ্রাম জেলা সম্পাদক পুলিন বিহারী বাস্কে বলেন অনাহারে মৃত্যুই বলব। পুজোর আগে এসেও দেখেছি এদের খবই খারাপ অবস্থা। যে পরিমান নিম্ন মানের চাল দেওয়া হয় তা পশুও খেতে পারবে না। যা খেয়ে তারা অসুস্থ হয়েছে। আমরাশোলের ঘটনার পর পনেরো বছর পেরিয়ে গিয়েছে। অবস্থা যে তিমিরে ছিল সেখানেই আছে।