মাওবাদী হামলায় নিহত ও আহতদের পরিবারগুলি ফুসছে ক্ষতিপূরণের দাবিতে

0
246

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ ওরা পেলে আমরা কেন পাই না? ওরা মাথা উঁচু করে বাঁচলে আমরা কেন পারব না? ভয় ও অত্যাচার নিয়েই একসময় পিঠ ঠেকে গিয়েছিল দেওয়ালে।

জঙ্গলমহল জুড়ে দাপিয়ে বেড়ানো মাও আতঙ্কে সিঁটিয়ে থাকা পরিবারগুলো আজও দিন গুনছে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের আশায়। অভিযোগ আর বঞ্চনার পাহাড়ে ভিড় করে থাকা মুখগুলো চাইছে বিচার। মঙ্গলবার ঝাড়গ্রামে মাওবাদীদের হাতে নিহত ও আহতের পাশাপাশি নিখোঁজ পরিবারগুলোর তরফে মিছিল বার করা হয়। সুদীর্ঘ এই পদযাত্রায় ক্ষতিপূরণ, চাকরি সহ একগুচ্ছ দাবিতে সোচ্চার হন মাও আক্রমণে নিহত ও আহত পরিবারের মহিলারা। তাঁরাই স্মারক্লিপি দেন জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারকে। মিছিলে পা মেলানো এক আদিবাসী মহিলার কথায়, “এখন তো দেখছিল যে সমস্ত মাওবাদীরা খুন, সন্ত্রাস করল, তারাই আজ মাথা উঁচু করে সরকারি চাকরি করছে। অথচ যারা তাদের শিকার হলেন, তাঁদের দিকে কেউ ফিরেও তাকালেন না। এখনও বহু নিখোঁজ মানুষের খোঁজ মেলেনি। লালগড়, ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন ব্লক থেকে কঙ্কার উদ্ধার হয়েছে। বহু অসহায় পরিবার এখনও বঞ্চিত সরকারি সাহায্য থেকে । এদিন মোট ন’দফা দাবি নিয়ে মাও আক্রান্ত পরিবারের সদস্যরা বিক্ষোভে সামিল হন। কেন্দ্রের তরফে দশ লক্ষ এবং রাজ্যের তরফে পাঁচ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ, পরিবারের একজনের চাকরি, কৃষিঋণ মুকুব স্বাস্থ্য বিমার আওতায় আনার মতো দাবিও তোলা হয়। মিছিলে পা মেলানো শুভঙ্কর মণদলের কথায় ঝাড়গ্রাম জেলায় মাওবাদীদের হাতে ৪২০জন শহিদ, নিহত, আহত হয়েছেন। তারা আজ অবহেলিত। এমনকি নিখোঁজদের মৃত ঘোষনা করেনি প্রশাসন। আমরা জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারকে ডেপুটেশন দিলাম। সমস্যার সমাধান না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে যাব।