বিজেপিকে চাঁছাছোলা ভাষায় আক্রমণ হানলেন অভিষেক, পার্থ

0
239
পত্রিকা প্রতিনিধিঃ যাঁরাই এক সময় সিপিএম করতো, এখন তাঁরাই বিজেপি করছে। বাংলা থেকে তাই সিপিএম মুছে গিয়েছে বলে মন্তব্য করলেন যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার সবংয়ের চাঁদকুড়িতে নির্বাচনী সভা করে যুব তৃণমূল কংগ্রেস। ঐ সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন অভিষেক বাবু। তিনি বিজেপির পাশাপাশি সিপিএমের কড়া সমালোচনা করেন। ঐ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সাংসদ মানস ভূঁঞ্যা, মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি, যুব তৃণমুলের জেলা সভাপতি রমা প্রসাদ গিরি, বিধায়ক শ্রীকান্ত মাহাত, তৃণমূল প্রার্থী গীতা রানী ভূঁঞ্যা প্রমুখ। সভায় অভিষেকবাবু বলেন, বিজেপি উন্নয়নের কথা বলছে না। শুধু মেরুকরণের রাজনীতি করছে। তাই মানসবাবু গতবার যেখানে প্রায় ৫০ হাজার ভোটে জিতেছিলেন, এবার গীতাদেবী ৭০ হাজারের বেশি ভোটে জয়লাভ করবেন। তিনি বলেন, রায়ের সরকার ছ’বছরে কী উন্নয়ন করেছে তা সামনে আনা হোক। আর বিজেপি গত তিন বছরে কী উন্নয়ন করেছে তার সঙ্গে মেলানো হোক, উন্নয়নের ক্ষেত্রে রাজ্য সরকার পিছিয়ে থাকলে রাজনীতি ছেড়ে দেব। 
এদিন তিনি বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের কড়া সমালোচনা করেন। অভিষেকবাবু বলেন, আমরা পরিবর্তনের সরকার ২০১১ সালে আমর সময় থেকেই দলে বেনো জল ঢুকেছে বলে আসছি। যাঁর নেতৃত্বে দলে বেনো জল ঢুকছিল, তাঁকেই দল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সবং থেকে বিজেপি কাউকে প্রার্থী করতে পারেনি। তাই পিংলা থেকে এক সময় সিপিএম করা এক মহিলাকে এখানে প্রার্থী করেছে। ঐ বিজেপি প্রার্থীর গত বিধান্সভা নির্বাচনে জামানত জব্দ হয়েছিল। লজ্জা করে না বলেই সবংয়ে প্রার্থী হয়েছেন। সভায় পার্থবাবু বলেন, বিজেপির একজন (মুকুলরায়কে উদ্দেশ্য করে) এখন ঘুরে বেড়াচ্ছেন। য্বপ্ন দেখছেন পদ্মফুল ফোটাবেন। কিন্তু পদ্মফুল যেমন ফুটবে না, তেমনি স্বপ্নও কখনও পূরণ হবে না। আমাদের লড়াইটা হচ্ছে উন্নয়নের। লড়াই হচ্ছে খেটে খাওয়া মানুষের স্বার্থে। যারা নোটবন্দী এবং জিএসটি করে মানুষকে দুর্ভোগে ফেলেছেন তাদের জায়গা এরাজ্যে হবে না।