নয়াগ্রামে নেকরের হানায় ১৬জন জখম, বনকর্মীরা উদ্ধার করলেন নেকড়ের মৃতদেহ

0
422

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ সোমবার নয়াগ্রামে লোকালয়ে ঢুকে পড়ল একটি নেকড়ে। নেকড়ের হানায় পাঁচ বছরের দু’জন শিশু সহ মোট ১৬ জন জখম হয়েছে। তবে জখম মোট ১৬ জনই নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে নেকড়েটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় ও বনদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন দুপুরে বাড়ির সামনে বাবুই দড়ি পাকানোর কাজ করছিল রানী সরেন। বাড়ির সমনে খেলা করছিল রানীদেবীর পাঁচ বছরের শিশু সঞ্জয় সরেন। হঠাত্‍ই নেকড়েটি রানীদেবীকে আক্রমণ করে। তারপর তাঁর পাঁচ বছরের শিশুটিকে আঁচড়ে দেয় নেকেড়েটি। তারপরই নেকেড়েটি কোপ্তিভোল গ্রামে ঢুকে পড়ে। সেখানে গ্রামবাসীরা জমিতে আউশ ধান কাটার কাজ করছিলেন। কোপ্তিভোল দুলাল হাঁসাদা সহ বেশ কয়েকজনকে কামড়ে ও আঁচড়ে দেয়। দু’ঘন্টায় নেকড়েটি প্রায় দশ কিমি ছুটে মোট ১৬ জনকে জখম করেছে। লোকালয়ে ঢুকে পড়ায় কারোর হাতে, কারোর পায়ে, কানে ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কামড়ে দিয়েছে।

১৬জনকে নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। খবর পেয়ে বনদপ্তরের লোকজন গিয়ে পাঁচকাহানিয়া এলাকায় নেকেড়েটি মৃত অবস্থায় অবস্থায় উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য বনকর্মীরা হিজলিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে হাসপাতালে যান নয়াগ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সঞ্চিতা ঘোষ ও নয়াগ্রামের বিডিও সৌরেন্দ্রনাথ পতি নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে যান।

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সঞ্চিতা ঘোষ বলেন, হঠাৎই এদিন দুপুরে নেকেড়েটি বিভিন্ন গ্রামে হামলা চালায়। মোট ১৬ জন জখম হয়েছেন। গ্রামবাসীরা আত্মরক্ষার স্বার্থে মেরে ফেলেছে।