নন্দীগ্রামে বিজেপি সমর্থকরা চড়াও হল হোটেল মালিকের ওপর, আহত ২

0
1061

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ মনোনয়ন পত্র জমা দিতে এসে একটা হোটেলে ভাংগচুর চালালো বিজেপির সমর্থকেরা।ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার উত্তেজনা ছড়ায় পুর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামে। বিজেপি কর্মীদের হামলার জেরে আহত হয়েছে দুই জন।এদের মধ্যে একজন হোটেলে খাওয়ার খেতে এসে বিজেপি কর্মীদের উন্মত্ততার শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ। এই বিষয়ে বিজেপি নেতৃত্ব মুখ খুলতে রাজী হয়নি। নন্দীগ্রাম -২ ব্লকের বিভিন্ন পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতির আসনে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে আসে বিজেপি প্রার্থীরা।তাদের সাথে মিছিল করে বিডিও অফিসে আসে শঅতাধিক কর্মী সমর্থক।জানা গেছে মনোনয়ন পত্র জমা দেবার পরে বিডিও অফিস থেকে কিছুটা দূরে তৃপ্তি হোটেল নামের একটা হোটেলে খাওয়ার খেতে ঢোকে বিজেপি কর্মীরা।জান গেছে এক সাথে হোটেলে অনেক খরিদ্দার আসায় বিজেপি কর্মীদের সকলকে সমান ভাবে খাওয়ার পরিবেশনে দেরী হওয়ায় হোটেল কর্মীদের সাথে বচসায় জড়িয়ে পড়ে বিজেপি সমর্থকেরা।ের জেরে উত্তেজনা তৈরী হতেই হোটেলের মালিক সুকুমার ঘোড়ই-র ভাই মোহন ঘোড়ইকে প্রহার লাগায় বিজেপি সমর্থকেরা। ভাঙ্গচুর করে হোটেলের সামগ্রী। জানা গেছে সেই সময় হোটেলে খাওয়ার খেতে আসা চন্দন জানা নামের এক জন গ্রাহক এই ঘটনার প্রতিবাদ করেন।অভিযোগ বিজেপি সমর্থকেরা সেই গ্রাহকের উপরের হামলা চালায়।এর পর স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা ঘটনাস্থলে ছূটে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।জানা গেছে বিজেপি কর্মীদের মারে গুরুত্বর আহত  মোহন ঘোড়ই ও চন্দন জানাকে প্রথমে চিকিতস্যার জন্যে নন্দিগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।কিন্তু অবস্থার অবনতি হওয়ায় দুই জনকেই তমলুক জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করতে হয়েছে।অপর দিকে শহিদ মাতঙ্গিনী ব্লক অফিস এ ্মনোনয়ন পত্র জমাকে কেন্দ্র  করে সিপিএম  ও তৃনমুল সমর্থকেরা সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে।জানা গেছে এই ঘটনাত দুই পক্ষের ১০ জন কর্মী আহত হয়েছে।বামফ্রন্টএর কর্মীরা অভিযোগ করেছে বুড়ির বাজার থেকে তারা মিছিল করে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে বিডিও অফিসে আসা মাত্রই তৃনমুল কর্মী সমর্থকেরা তাদের উপরে হামল চালায়।অন্যদিকে তৃনমুলের দাবী তাদের প্রার্থীদের উপরে হামলা চালায় বাম সম্ররথকেরা।ঘটনাকে ঘিরে  হলদিয়া মেছেদা রাজ্য সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে যায়।পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে