মেদিনীপুর পুরবোর্ডের মেয়াদ আর মাত্র কয়েকদিন, তার আগে বেহাল চিত্র বিভিন্ন ওয়ার্ডে

0
797

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ মেদিনীপুর পুরবোর্ডের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ১৬ ডিসেম্বর। তার আগেই শহরের বেহাল চিত্র ফুটে উঠেছে বিভিন্ন ওয়ার্ডে । শহরের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের মানিকপুর তালপুকুর লেনে নিকাশি ব্যবস্থা এক্কেবারে ভেঙে পড়েছে। নালায় দীর্ঘদিন ধরে নোংরা আবর্জনা জমে নালা বুজে গিয়েছে। নালার জমা জলে মশা, মাছি বাসা বেঁধেছে। ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধও। এই ওয়ার্ডেরই বাসিন্দা অসীম দাস সহ অন্যান্যরা বললেন, নালাতি দীর্ঘদিন ধরে পরিষ্কার হয়নি। কাউন্সিলর, পুরপ্রধানকে একাধিকবার জানানো হলেও নালা পরিষ্কারে কেউই উদ্যোগ নিচ্ছে না। ওয়ার্ডের অন্য বাসিন্দারাও বললেন ঐ সব নালা নিয়মিত পরিষ্কার হয় না বহুদিন ধরেই, যার জন্য নালায় পচা জল থেকে যেমন দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে তেমনি মশার লার্ভা জন্মাচ্ছে। একই চিত্র শহরের অন্যান্য ওয়ার্ডেও। শহরের ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কামারপাড়ায় নর্দমার হাল একই। নিয়মিত নর্দমা পরিষ্কার হয় না সেখানে। তীব্র ক্ষোভ রয়েছে ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মধ্যে। শহরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রামকৃষ্ণনগর, ধর্মা প্রভৃতি এলাকায় নালা বুজে যাওয়ায় নর্দমার নোংরা জল উপচে রাস্তায় এসে মিশছে।

শুধু যে নিকাশি ব্যবস্থার চিত্র বেহাল তেমনটি নয়, শহ্রের সৌন্দর্যায়নের জন্য যে ত্রিফলা বাতি লাগানো হয়েছে তার মধ্যে অনেক লাইট দীর্ঘদিন ধরেই অকেজো হয়ে পড়েছে। বহু ওয়ার্ডে গলি রাস্তাগুলির অবস্থা অত্যন্ত বেহাল। শহরের প্রধান নিকাশি নালা দ্বারিবাঁধ খালে থার্মোকল সহ অন্যান্য আবর্জনা জমে নালার মুখ অনেক জায়গায় বুজে গিয়েছে।

১৬ ডিসেম্বর মেয়াদ শেষ হচ্ছে মেদিনীপুর পুরসভার। তারপর প্রশাসক নিযুক্ত হবে পুরসভায়। শহরবাসীর বক্তব্য শহরের অবস্থা এমনিতেই বেহাল, তারপর প্রশাসক নিযুক্ত হলে বেহাল দশা আরও প্রকট হবে। মাত্র কয়েকদিন আগেই নির্দিষ্ট সময়ে ভোট চেয়ে পুরসভার সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল বিজেপি। শহর পরিচ্ছন্ন রাখা ও নির্দিষ্ট সময়ে ভোট চেয়ে বহুবার দাবি করেছে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলিও। কিন্তু মেদিনীপুর পুরসভার ভোট আপাতত বিশবাও জলে। কবে ভোট হবে সেদিকেও তাকিয়ে শহরবাসী।