শহরে পনেরো বছরে এক নাবালিকা ছাত্রীকে অপহরণ করে উধাও বাংলাদেশি, ২ জন আটক

0
971

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ পনেরো বছরের এক নাবালিকা ছাত্রীকে অপহরণ করার অভিযোগ উঠল এক বাংলাদেশি যুবকের বিরুদ্ধে ঘটনাটি মেদিনীপুর শহরের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের। ৩জন বাংলাদেশিকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার আগে পালান একজন। গত সোমবার শহরের ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের পালবাড়ি এলাকার বাসিন্দা বছর পনেরোর এক ছাত্রী স্কুল যাওয়ার সময় নিখোঁজ হয়। পরিবারের লোকজন বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করেও রাতভর তার কোনও খোঁজ পায়নি। তবে তারা জানতে পারেন তাদেরই উল্টো দিকের একটি বাড়িতে ভাড়ায় থাকা এক বাংলাদেশি যুবকও নিখোঁজ। সেই বাড়িতে ভাড়ায় থাকা অপর বাংলাদেশিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারেন নিখোঁজ থাকা শাহিনুর ইসলাম মেয়েটিকে নিয়ে পালিয়েছে। শাহিনুরের আবার দক্ষিন ২৪ পরগণার এক স্ত্রী রয়েছেন। পরিবারের লোকরা ঝুঁকি নিয়ে শাহিনুর ইস্লামের স্ত্রী যেখানে থাকেন সেই দক্ষিণ ২৪ পরগণা এলাকাতেও যান। কিন্তু সেখানে মেয়ের খোঁজ মেলেনি। এই পালবাড়ি এলাকায় ভাড়া থাকত যে সমস্ত বাংলাদেশিরা তাদের মধ্যে রাহুল চালি নামে একজন তাদের মেয়েকে খুঁজে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে তাকে গত তিনদিন ধরে বাড়িতেই রাখা হয়। শনিবার তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার আগে এলাকার কাউন্সিলর সৌমেন খান তিন জনকে তাঁর অফিসে নিয়ে যেতে বলেন। কিন্তু অফিস থেকে পালিয়ে যায় রাহুল নামের এক বাংলাদেশি। বাকি ২ জনকে আটক করেছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এদের পাস্পোর্ট আসল না নকল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। অন্যদিকে পরিবারের লোকেরা আশঙ্কা যে তাদের মেয়েকে ভুল বুঝিতে তুলে নিয়ে গিয়েছে পাচার করার উদ্দেশ্যে। সৌমেনবাবু জানিয়েছেন, বাংলাদেশিরা এসে এই শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘাঁটি গাড়ছে। সুযোগ বুঝে অসামাজিক কাজকর্মও করছে। তাই ওয়ার্ডের পাশাপাশি গোটা শহরে মানুষের উচিত ঘর ভাড়া দেওয়ার আগে সঠিক তথ্য জেনে নেওয়া।