কারখানার বর্জ্য পদার্থ দূষিত এলাকা, বিক্ষোভ গ্রামবাসীর

0
795

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ পরিবেশের কোনও অংশই আজ দূষণমূক্ত নয়। প্রতিনিয়ত প্রাকৃতিক পরিবেশের দূষন ঘটছে ব্যাপক হারে। দূষণের ঝুঁকিতে পড়ে মানুষ সহ সকল উদ্ভিদ ও প্রানীর জীবন ধারণে বিঘ্ন ঘটছে। পরিবেশের মাটি, জল ও বায়ূ মাটির উপরের জল এমনকি ভূগর্ভস্থ জল কোনও কিছুই নিরাপদে নেই। যা আবহাওয়ার বিরূপ আচরণ ও জলবায়ূ পরিবর্তনের মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে। এই দূষণ থেকে বাদ যাচ্ছে না ভাদুতলা। কারখানার বর্জ্য পদার্থ নিরাপদ জায়গায় ফেলার কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না কারখানা কর্তৃপক্ষ। এমনই অভিযোগ পশ্চিম শালবনি ব্লকের কর্ণগড় গ্রাম পচায়েতের অধীনস্থ কলাবেড়িয়া ভাদুতলা ও নিশ্চিন্তপুর এলাকার বাসিন্দাদের। ভাদুতলায় রয়েছে একটি চাল ও তেল মিল। এই চাল ও তেল মিল থেকে নির্গত হচ্ছে বিষাক্ত ধোয়া, চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে বর্জ্য পদার্থ। এলাকাবাসীর বক্তব্য কারখানার বর্জ্য পদার্থ কৃষি জমি ও রাস্তার পাশে ফেলে দিচ্ছে কর্তপক্ষ। যার ফলে চাষের ক্ষতি হচ্ছে। চিমনি থেকে নির্গত ধোঁয়ার স্বাস্থ্যেরও ক্ষতি হচ্ছে। বাইরে সাদা কাপড় রাখলে কিছুপর তার উপর কালো স্তর পড়ে যাচ্ছে, জলের উপরও পড়ছে কালো আস্তরণ।

কারখানায় জমিছে দূষিত জল। এই দূষিত জলে জন্ম নিচ্ছে মশা মাছি, যার ফলস্বরূপ রোগের বৃদ্ধি ঘটছে এলাকায়। ফলে এলাকার দূষণ নিয়ে কারখানার সামনে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের কাছে গণোস্বাক্ষর সহ লিখিত অভিযোগ জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি বলে দাবি এলাকাবসী। স্থানীয় বাসিন্দারা বনদফতরে গেলে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান আধিকারিকরা। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি কারখানায় বর্জ্য পদার্থ রাস্তা বা জমিতে ফেলা চলবে না। আধুনিক (দূষন নিয়ন্ত্রক) উঁচু চিমনি লাগাতে হবে। কারখানার দূষিত পদার্থ কারখানার মধ্যে রাখতে হবে।