দাঁতনের জখম বিজেপি কর্মীর মৃত্যু কলকাতার হাসপাতালে, শাসক তৃণমূলকে দুষল দল

0
127
পত্রিকা প্রতিনিধিঃ দাঁতনের কাঁটাপালে আক্রান্ত বিজেপি কর্মী বিপিন দাসের মৃত্যু হল। রবিবার রাতে কলকাতার এক হাসপাতালে বিপিনবাবুর মৃত্যু হয়। সোমবার তাঁর মরদেহ দলের রাজ্য কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হলে শেষ শ্রদ্ধা জানান বিজেপি নেতৃত্ব। আজ মঙ্গলবার দলের জেলা কার্যালয়ে নিয়ে আসা হবে বিপিন বাবুর দেহ। তারপর দাঁতনে নিয়ে যাওয়া হবে। বিজেপির অভিযোগ শাসকদলের কর্মী সমর্থকরা বিপিনবাবুকে বেধড়ক মারধর করেন। মাথায় আঘাত ছিল। মেদিনীপুর মেডিক্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে কলকাতার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু মাথায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণেই বিপিনবাবুর মৃত্যু হয়। দলের বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি। তিনি বলেন, গ্রাম্য বিবাদের জেরে মারধরের ঘটনা ঘটেছিল। ঐ ঘটনায় রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। কী কারণে মারধরের ঘটনা ঘটেছিল পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নিক। তাতে তৃণমূলের কোনও আপত্তি নেই।
বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কয়েকদিন আগে ওই এলাকায় সভা করা হয়েছিল। তাতে বিপুল সাড়া পড়েছিল। বহুমানুষ দলীয় সভায় সামিল হয়েছিলেন। দলের সাংগঠনিক দিকটি দেখতেন বিপিনবাবু। বিজেপির উত্থান দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। তাই কোনও কারণ ছাড়াই বিপিনবাবুর উপর হামলা চালানো হয়। খুনের জন্যই তাঁর মাথায় সজোরে আঘাত করেছিল তৃণমূলের লোকজন। মেদিনীপুর মেডিক্যাল হাসপাতালে বিপিনবাবুর মাথায় প্রায় কুড়িটি সেলাই করা হয়েছিল। অবস্থার অবনতি হওয়ায় কলকাতায় নিয়ে যাওয়া হলে শেষ রক্ষা হয় নি। বিপিন বাবার মৃত্যুতে গোটা দাঁতন এলাকায়