হায়না আতঙ্ক গ্রামে, ধরল বনদফতর

0
627

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ শনিবার সাত সকালে হায়নার আতঙ্ক। পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড়ের বেল্টির জঙ্গল থেকে বেরিয়ে আসা একটি হায়নাকে গ্রামের মধ্যে দেখে আতঙ্ক ছড়াল নারায়ণগড়ের ডহরপুর গ্রামে। হিংস্র জন্তুটিকে দেখে গ্রামবাসীরা প্রথমে আতঙ্কিত হয়ে পড়লেও পরে দেখা যায় প্রণিটি কোউকে আক্রমন করছে না। চলছে খুঁড়িয়েও । হায়নাটি সামান্য আহত বলে গ্রামবাসীরা বুঝতে পারে । এরপর সেটিকে আটকে রেখে বনদফতরের হাতে তুলে দিয়েছে গ্রামবাসীরা । সকালে ঘুম থেকে উঠে গ্রামবাসীরা হায়নাটিকে গ্রামের মধ্যে ঘুরতে দেখেন স্থানীয়রা।সকলেই ভয়ে চেঁচামেচী ও দৌড় শুরু করে । কিন্ত হিংস্র প্রণীটি কাউকে আক্রমন না করে চুপচাপ দাঁড়িয়ে ছিল । পরিস্থিতি বুঝতে পেরে গ্রামবাসীরা হায়নাটিকে তাড়া করে ধরে ফেলে। স্থানীয়দের অনুমান, হায়নাটি সম্ভবতঃ পাশেই ট্রেন লাইনে ট্রেনের ধাক্কায় জখম হয়েছে। হায়নাটিকে তাঁরা পিটিয়ে মেরে ফেলার পরিবর্তে বন দফতরে খবর পাঠায়। খবর পেয়ে বন দফতরের হিজলি রেঞ্জের কর্মীরা হায়নাটিকে আহত অবস্থায় হিজলিতে নিয়ে আসে।

সেখানেই তার চিকিত্‍সা চলছে। আরও চিকিত্‍সার জন্য সেটিকে ঝাড়গ্রামের মিনি জু”তে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানান, যে সময় রয়েল বেঙ্গল টাইগারটি পশ্চিম মেদিনীপুরের জঙ্গলে ঘুরে বেড়াচ্ছিল সেই সময়ই প্রথমবার আহারমুন্ডা সহ নারায়নগড়ের বিভিন্ন এলাকায় হায়নার পায়ের ছাপ দেখা গিয়েছিল এই জঙ্গলে। তবে এলাকায় কখনও হায়না দেখেননি গ্রামবাসীরা।প্রথমবার তাই হায়নাটিকে দেখতে পেয়ে গ্রামের মানুষ সেটিকে দেখতে ব্যাপক ভীড় জমায়।পায়ের ছাপ মেলার পর হায়না ধরা পড়ায় কিছুটা স্বস্তিতে ডহরপুর বাসী।