উদ্বোধনের ছ’মাস পরেই বন্ধ হয়ে গেল শালবনি পঞ্চায়েতের বর্জ্য নিষ্কাশন প্রকল্প

0
195
পত্রিকা প্রতিনিধিঃ মুখ্যমন্ত্রীর হাতে উদ্বোধন হওয়ার ছ’মাস পরেই বন্ধ হয়ে গেল শালবিন গ্রাম পঞ্চায়েতের কঠিন বর্জ্য নিষ্কাশন প্রকল্প। গত বছর পুজোড় পরই মুখ্যমন্ত্রী ঝাড়গ্রামের প্রশাসনিক সভা থেকে উদ্বোধন করেছিলেন- শালবনি গ্রামপঞ্চায়েত স্বপ্নের প্রকল্প কঠিন বর্জ্য নিষ্কাশন প্রকল্প। গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ৯টি সংসদ এলাকায় ১৩টি মৌজার সমস্ত পরিবার, দোকান, হাট, বিদ্যালয় সহ সমস্ত স্থান থেকে বর্জ্য সংগ্রহের জন্য দুটি করে বালতি প্রদান করা হয়েছিল। একটি পচনশীল বর্জ্য ও আর একটি অপনশীল বর্জ্য-এর জন্য), মোট ১২জন কর্মী প্রতিদিন ভ্যান গাডি নিয়ে বাড়ি বাড়ি বর্জ্য সংগ্রহ করতেন। সেই বর্জ্যকে বাছাই করে তার থেকে জৈব সার তৈরির জন্য ৩জন ছেলেকে প্রশিক্ষণ প্রদান করে নিয়োগ করা হয়েছিল। বিগত ন’মাসে এই প্রকল্প এবং পরিকল্পনায় শালবনি অঞ্চলের মানুষ যথেষ্ট উপকৃত হচ্ছিলেন, বাহবা এবং সুনাম কুড়িয়েছিল বিশ্ব ব্যাঙ্কের প্রতিনিধি দল সহ বিভিন্ন সরকার, বেসরকারি সংস্থার। কিন্তু গত সেপ্টেম্বর থেকে শালবনি গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ডের সিদ্ধান্তে বন্ধ করে দেওয়া হয়। গ্রাম পঞ্চায়েতের বিগত নির্মান সহায়ক মানস ঘোষের উদ্যোগে শালবনি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার গোটকলা মৌজাতে ২ বিঘা জমির উপর প্রায় ৬০লক্ষ টাকা ব্যায়ে এই প্রকল্প গড়ে তোলা হয়েছিল। প্রকল্পটির প্রধান উদ্দেশ্য ছিল গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার পরিবেশ পরিষ্কার রাখা এবং জৈব সার তৈরির মাধ্যমে আর্থিক আয় যার ফলে ১৫ জন মানুষ কাজও পেয়েছিলেন। প্রকল্প শুরুর সময় থেকেই পুরো বিষটি পরিচালনা করতেন তৎকালীন এই নির্মাণ সহায়ক। কিন্তু তাঁর বদলির পর নতুন নির্মান সহায়ক কোনও দায়িত্ব নিতে রাজি হননি এবং গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান এবং অন্যান্য সদস্যরা পঞ্চায়েত সমিতি, জেলা পরিষদ কোন দফতরকেই না জানিয়েই বা সাহায্যের কোনও আবেদন না করে আর্থিক ক্ষতির কথা বলে প্রকল্প বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, এর ফলে এলাকার মানুষ যথেষ্ট উদ্বিগ্ন, এই প্রকল্প বন্ধ করে দেওয়ার ফলে ১৫ জন কর্মী কর্মহীন হয়ে পড়লেন, এই সব কর্মচারীরা প্রধানের কাছে দরবার করলে তিনি কোণও কথাই শুনতে রাজি হননি। এর পরে এই কর্মচারীরা এবং এলাকার মানুষজন পঞ্চায়েত সমিতি সভাপতি এবং বিডিও-র কাছে আবেদন জানান। তাঁরা জানান শালবনি পঞ্চায়েত সমিতির উদ্যোগে আগামী দিনে এই প্রকল্প পুনরায় চালু করার ব্যবস্থা করবেন।