প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী প্রয়াত, রাষ্ট্রীয় শোক, আজ রাজ্য সরকারের অর্ধদিবস ছুটি ঘোষণা, শহরে মৌন মিছিল

0
569

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ অটল যুগের ইতি। শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী । ৯৩ বছর বয়সে তাঁর জীবনের গতি থামল। নয়াদিল্লির এইমস-এ তিনি গত ১১ জুন থেকে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত দু’দিন ধরে তাঁর অবস্থা আরও সংকটজনক হয়ে উঠেছিল। মঙ্গলবার লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমে রাখা হয় তাঁকে। বুধবার থেকে বন্ধ হয়ে যায় বাজপেয়ীজির শরীরের বেশিরভাগ অঙ্গের কাজ। ভেণ্টিলেশনে চলে যান তিনি। পরিস্থিতি খারাপ শুনে বুধ ও বৃহস্পতিবার হাসপাতালে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ বিজেপির অন্য নেতারাও। ডাক্তারেরা প্রাণপন চেষ্টা চালান। কিন্তু তাঁদের শেষ চিকিৎসাও ব্যর্থ হয়। এদিন বিকেলে ৫.০৫ মি নাগাদ বাজপেয়ীজির প্রয়ানের খবর জানানো হয় হাসপাতালের তরফে।

অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রয়ানের সঙ্গে সঙ্গেই শেষ হয় এক বর্ণময় রাজনৈতিক চরিত্রের। যিনি ভারতের প্রথম অকংগ্রেসি জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী যিনি পূর্ণ সময়ের জন্য ক্ষমতায় থাকতে পেরেছিলেন। তিনি বেনজির ভাবে ১৯৯৬ সালে মাত্র ১৩ দিনের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন। তবে এর পরই তিনি দু’বার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এবার তেরো মাস। তবে শেষবার ১৯৯৯-২০০৪ পর্যন্ত পূর্ণ সময়ের জন্য এন ডি এ সরকারের প্রধানমন্ত্রী পদে বৃত ছিলেন তিনি । তাঁর আমলেই রাজস্থানের পোখরানে পর পর ৫টি পরমানু বোমার পরীক্ষামূলক বিস্ফোরন ঘটানো হয়। ১৯৭৪ সালের পর ফের ১৯৯৮ সালে দেশে পরমানূর পরীক্ষা যা পখরান-২ নামে পরিচিত। ১৯৯৯ সালে তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসে জাতীয় সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প ও প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা বাজপেয়ীর সবচেয়ে বড় উন্নয়নমূলক পদক্ষেপ। যা ভারতের সড়ক যোগাযোগে কার্যত বিপ্লব ঘটিয়েছে। বাজপেয়ীজির জন্ম ১৯২৪ সালের  ২৫ ডিসেম্বর।