সবংয়ে শাসকদলের নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুললেন ফিরহাদ, চন্দ্রিমা

0
341

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ সবংয়ে নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলেছে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার সবংয়ের বিভিন্ন জায়গায় সভা করেন তৃণমূল নেতৃত্ব। এদিন পৃথক ভাবে সভা করেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সঙ্গে ছিলেন জেলার কয়েকজন বিধায়ক ও দলীয় নেতৃত্ব। সভাগুলিতে বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে বিজেপি ভাঙার চেষ্টা করছে। হিন্দু-মুসলিমকে ভাগ করে মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করছে। এতে সুবিধা হবে পাকিস্তান ও মার্কিং যুক্তরাষ্ট্রের। বিজেপি এখন মানুষ কী খাবে, কী পরবে নির্ধারণ করতে চাইছে। সম্প্রীতিকে নষ্ট করতে গুজরাতে বাঙালি এক শ্রমিককে নৃশংসভাবে খুন করেছে কিন্তু বাংলার মানুষ এর তীব্র প্রতিবাদ করবে। তিনি বলেন, এই উপ নির্বাচনের ফলাফলে মুখ্যমন্ত্রীর পদ চলে যাবে না কিন্তু এই নির্বাচনী ফালাফল সাম্প্রদায়িক শক্তি বিজেপিকে বাংলার মানুষ চিন্তা ও মানসিকতা কী তা বুঝিয়ে দেবে। এদিন তিন রুইনা, হায়দাদ, সবংবাজারে সভা করেন। সঙ্গে ছিলেন বিধায়ক আশিস চক্রবর্তী, পুরপ্রধান প্রদীপ সরকার, বিকাশ ভূঁঞ্যা প্রমুখ। সভায় ফিরহাদ হাকিম রাজ্য কংগ্রেস নেতৃত্বের কড়া সমালোচনাও করেন এদিন সবং, এড়ালবাজার ও তেমাথানিতে সভা করে মহিলা তৃণোমূল কংগ্রেস । সভাগুলিতে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী চন্দ্রীমা ভট্টাচার্য। সঙ্গে ছিলেন অন্যান্য তৃণমূল নেতৃত্ব। চন্দ্রিমাদেবী বলেন, আপনারা উন্নয়নের পক্ষে ভোট দেবেন। মানস ভূঁঞ্যা ও সবং একে অপরের পরিপূরক। কেলেঘাই-কপালেশ্বরী নদী সংস্কারে বহুবার দরবার করেছিলেন মানসবাবু। ১৯৮৭ সালে প্রথম বিধায়ক হয়ে সবংয়ের মানুষের জন্য লড়াই করে আসছেন মানসবাবু। তিনি এখন সাংসদ হয়েছেন। তার স্ত্রী গীতা রানী ভূঁঞ্যা এবার প্রার্থী হয়েছেন তাঁকে আপনারা ভোট দেবেন। সভগুলিতে অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন সূর্যকান্ত অট্ট, নির্মল ঘোষ, রবিশংকর পাণ্ডে প্রমুখ। এদিন তৃণোমূল কংগ্রেস প্রার্থী গীতারানী ভূঁঞ্যা, সাংসদ মানস ভূঁঞ্যা একাধিক জায়গায় সভা করে ভোট প্রচার করেন।