জেলায় প্রদেশ কংগ্রেসের সদস্য থেকে বাদ পড়ছেন শম্ভু, সৌমেন সহ অনেকেই, থাকছে নতুন মুখ

0
954
ফাইল চিত্র
পত্রিকা প্রতিনিধিঃ পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় দীর্ঘদিন ধরে যাঁরা কংগ্রেস করে আসছেন, যাঁরা দীর্ঘদিন প্রদেশ কংগ্রেসের সদস্যও ছিলেন তাঁদের সিংহভাগকেই প্রদেশ কংগ্রেস কমিটিতে রাখা হয়নি। সূত্রে খবর সর্বভারতীয় কংগ্রেস কমিটির কাছে প্রদেশের যে তালিকা গিয়েছে তা এ জেলার অনেকেই বাদ পড়েছেন। সেই তালিকায় বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে কংগ্রেস নেতা শম্ভুনাথ চট্টোপাধ্যায়, সৌমেন খান, খড়গপুরের অমল দাস, গড়বেতার ভৈরব রায়, ডেবরার পৃথ্বীশ বেরা, দেবাশিস ঘোষ এবং সবংয়ের একঝাক কংগ্রেস নেতাকে। বরং সেই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন এক সময় তৃণমূলে চলে যাওয়া হেমা চৌবে, সদ্য রাজনীতিতে আসা মহম্মদ সাইফুল, সামসাদ হোসেন, রঞ্জন ভকত, তপন কুইল্যারা। সমীর রায়ও সেই তালিকায় স্থান পেয়েছেন। যিনি দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয় রাজনীতি থেকে দূরে ছিলেন। সূত্রের খবর অনেক আব্দার অনুনয় করে কমিটিতে স্থান পেয়েছেন কুনাল ব্যানার্জী।
গত মঙ্গলবার কলকাতায় প্রদেশ কংগ্রেসের বৈঠক হয়। সেখানে অধীর চৌধুরীকে সর্বসম্মতিক্রমে প্রদেশ সভাপতি করে একটি তালিকা দিল্লিতে পাঠানো হয়। প্রদেশ কমিটির তালিকায় যাঁদের নাম রয়েছে তাঁরাই ওইক বৈঠকে থাকতে পেরেছিলেন। স্বভাবতই এ জেলা থেকে শম্ভু চট্টোপাধ্যায়, সৌমেন খান সহ বহুপুরনো কংগ্রেস কর্মী বৈঠকের হলে ঢুকতেই পারেননি। প্রদেশ কমিটির পাঠানো তালিকা সর্বভারতীয় কমিটি থেকে এক সপ্তাহের মধ্যেই অনুমোদিত হয়ে আসবে। এরপর হবে জেলা কমিটি গঠন। সূত্রের খবর জেলা কমিটিতেও ওই সব দীর্ঘদিনের কংগ্রেস কর্মীদের রাখা হয়নি। এমনকি শহর কংগ্রেস সভাপতির পদ থকেও সরানো হয়েছে সৌমেন খানকে। সেখানে সভাপতি করা হচ্ছে দেবীদাস মহাপাত্রকে। 
দুমাস আগে দিল্লি থেকে পি আর ও (প্রদেশ রিটার্নিং অফিসার) যোগানন্দ শাস্ত্রীর নেতৃত্বে একটি দল এসে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ঘুরে ঘুরে কংগ্রেস নেতা কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাঁরাও একটা তালিকা সর্বভারতীয় নেতৃত্বকে জমা দিয়েছেন। এবার দেখার বিষয় হ’ল শেষ পর্যন্ত সর্বভারতীয় কমিটিতে অনুমোদিত হয়ে আসা তালিকায় কার কার নাম থাকে । এনিয়ে কংগ্রেস নেতা শম্ভুনাথ চট্টোপাধ্যায় বলেন। ঐ রকম তালিকা জমা পড়ার খবর জানা নেই। আর যদি জমা পড়ে তাহলে সমীর রায় তালিকা দিয়েছে। ওই সমীর রায়কে আমরা কোনদিন মানিনি। তাই আমাদের নাম তালিকায় না থাকারই কথা। সমীরবাবু তাঁর ঘনিষ্টদের নাম দিয়েছেন।