মাও সক্রিয়ত যাতে মাথা চাড়া না দেয় সেজন্য উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করলেন ডি জি

0
224
পত্রিকা প্রতিনিধিঃ জঙ্গলমহলে মাওবাদীদের আনাগোনা নিয়ন্ত্রণে এসেছে, এই শান্তি পরিস্থিতি পুনরায় যাতে বিঘ্নিত না হয় সেজন্য তৎপর পুলিশ। বুধবার জঙ্গলমহল অধ্যূষিত পাঁচ জেলার পুলিশ সুপারদের নিয়ে পুলিশ লাইনের সেফ হাউসে উচ্চ পর্যায়ের এই বৈঠক করলেন রাজ্য পুলিশের ডি জি সুরজিৎ করপুরকায়স্থ। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ডিজি বলেন, ” একদা মাওবাদী অধ্যুষিত জেলার সব পুলিশ সুপার ও সি আর পি এফ এর অফিসারদের নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে । পরিস্থিতি নয়ন্ত্রণে রয়েছে।
‘সেফ ড্রাইভ কর্মসূচিতে জোর’
মাওবাদী দমনে প্রতিবেশী রাজ্য ঝাড়খন্ড ও ওড়িশা প্রশাসনের সঙ্গে একাধিকবার যৌথ অভিযান হয়েছে, প্রয়োজনে আরও হবে।” সরকার যেসব কর্মসুচী পুলিশের মাধ্যমে করা হয় যেমন ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ কর্মসূচীর উপরও জোর দেওয়া হয়েছে বলে জানালেন তিনি। তিনি দাবি করেছেন জোরদার ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ কর্মসূচীর জন্য ২৫শতাংশ দূর্ঘটনা কমানো সম্ভব হয়েছে।মাওবাদী অধ্যূষিত পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে গত ছ’বছর ধরে মাওবাদী দমনে দক্ষতা দেখিয়েছেন প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ । মাত্র কয়েকদিন আগে সেই দাপুটে পুলিশ অফিসার ভারতী ঘোষের বদলি ও পরে ভারতীর ইস্তফা প্রদানের পর জঙ্গলমহলে যাতে শান্তি বিঘ্নিত না হয় সেজন্যই এই বৈঠক বলে প্রশাসনিক মহলের খবর। ভারতী ঘোষের সময় বহুবড় বড় নেতা নেত্রী আত্মসমর্পণ করেছেন । ভারতীর বদলীর পরের দিনও এক মাওবাদী আত্মসমর্পণ করেছেন। তাই ভারতীর অনুপস্থিতিতে মাওবাদীরা পুনরায় যাতে সক্রিয় না হয় সেজন্য তৎপর পুলিশের উচ্চমহল । যদিও ভারতী ঘোষ নিয়ে কোণও প্রশ্ন সাংবাদিকরা করেননি । বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন ডাকার সময় জেলার পুলিশ আধিকারিকরা সাংবাদিকদের বারংবার বলে দিয়েছেন “ভারতী ঘোষ সম্পর্কে কোনও প্রশ্ন করতে ডিজি স্যার বারণ করেছেন “।