বৌদির সঙ্গে পরকিয়ার জেরে ধৃত যুবক

0
849

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ কোলাঘাটে বড়িশা রেল কলোনিতে ঘটেছে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি। যুবক প্রেমের টানে বারবার বউদির কাছে ছুটে গেলেও সন্তানের দায় নিতে অস্বীকার করে। তারই জেরে হাতেনাতে ধরা পড়ে গণধোলাই খেল যুবক। এরপরই বছর ৩৩-র ওই তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে কোলাঘাট থানার পুলিশ গ্রেফতার করে যুবককে।

অভিযুক্ত যুবক সঞ্জীব সাউ সম্পর্কে মহিলার মাসতুতো দেওর। তার বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরায়। মহিলার শ্বশুরবাড়িও ডেবরায়। বছর দশেক আগে সূর্যকান্ত পড়িয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় কোলাঘাটের রেল কলোনির বাসিন্দা ওই তরুণীর। তাঁদের বছর ছয়েকের এক সন্তানও আছে। তা সত্ত্বেও সঞ্জীবের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে গৃহবধূ।

বিবাহ বহির্ভূত এই সম্পর্ক নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রবল অশান্তি শুরু হয় এরপর। তখনই ঘর ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে আসেন তরুণী। কিন্তু যোগাযোগ রয়ে যায় দেওর সঞ্জীবের সঙ্গে। সঞ্জীব প্রায়ই আসত কোলাঘাটের রেল কলোনিতে বউদির বাপের বাড়িতে। সেখানে অবাধ মেলামেশা করত তারা। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্কেও লিপ্ত হত।

তারই জেরে অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়েন গৃহবধূ। আর তা জেনেই বিয়েতে বেঁকে বসে যুবক। সে এই সন্তানের দায় নিতে অস্বীকার করে। তখনই ঝামেলার বাধে। ঘটনা জানাজানি হতে স্থানীয় বাসিন্দারাও উত্তেজিত হয়ে পড়েন। হাতেনাতে ধরে ফেলেন অভিযুক্ত যুবককে। কোলাঘাট থানার পুলিশ উত্তেজিত জনতার হাত থেকে তাকে উদ্ধারের পর গ্রেফতার করে যুবককে।