বিজেপির জেলা সভাপতিকে দাঁতনে ঢুকতে বাধা মহিলাদের, ক্ষুব্ধ শমিত

0
412

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ আগেই পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথিতে আক্রান্ত হয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তার একদিন বাদে আবারও আক্রান্ত হলেন বিজেপির এক শীর্ষ নেতা। বুধবার দুপুর নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতন থানার তরুরুই গ্রামে।

রাজনৈতিক সংঘর্ষে আহত দলীয় সমর্থকদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে হামলার মুখে পড়লেন পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপির জেলা সভাপতি শমিত কুমার দাস। মহিলারা রীতিমত ঝাঁটা হাতে তাঁকে রুখে দেন।

অভিযোগ, মহিলাদের পেছনে সশস্ত্র অবস্থায় ছিল শাসক দলের লোকেরাও। ঝাঁটা মেরে বিজেপি নেতা ও তাঁর সঙ্গীদের গ্রামে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলেও গ্রামে আর ঢুকতে পারেননি বিজেপি নেতা।

তিনি যখন ফিরে আসছিলেন তখন তাঁর গাড়ির পেছন থেকেও হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। যদিও পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রীয়তার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির নেতৃত্বররা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ তারিখ কৃষিতে ক্ষতিপূরণের ফর্ম বিলি নিয়ে দাঁতনের তররুই গ্রামে তৃণমূল বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এই ঘটনায় দুই পক্ষের ৬ থেক ৭ জন করে জখম হন। পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন দুই পক্ষই। সেই দিনের আক্রান্ত বিজেপি কর্মীদেরর সঙ্গে দেখা করতে বুধবার বেলা ১১ টার সময় তারুরুই গ্রামে যান বিজেপির জেলা সভাপতি শমিতবাবু ও তাঁর দলবল। কিন্তু গ্রামবাসীদের দাবী, বিজেপি আসার পরেই তাঁদের এলাকায় অশান্তি তৈরি হয়েছে। তাই গ্রামে আর কোনও বিজেপি নেতাকর্মীদের ঢুকতে দেওয়া হবেনা বলে গ্রামবাসীদের দাবী।