গোয়ালতোড়ে বিজেপির বাইক মিছিলে পুলিশি বাধা, উত্তেজনা, আক্রান্ত পুলিশ কর্তা সহ ৫ জন

0
1069

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ বিজেপির সংকল্প যাত্রাকে কেন্দ্র করে তুমুল উত্তেজনা ছড়াল পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড়ে। গোয়ালতোড়ে বিজেপির বাইক মিছিল আটকায় পুলিস। তারপরই পুলিস-বিজেপি কর্মীদের বচসায় রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে এলাকা। ধুন্ধুমার বেঁধে যায়।

মিছিল আটকাতেই পুলিসের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা। পুলিসের সঙ্গে ধস্তাধস্তি বেঁধে যায় বিজেপি কর্মীদের। বিক্ষোভ সামাল দিতে পুলিস লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। বিজেপি কর্মীরাও পাল্টা ইট ছোড়েন বলে অভিযোগ। বিজেপি কর্মীদের ছোড়া ইটের আঘাতে আহত হয়েছেন ডিএসপি অপারেশন উত্তম মিত্র। তাঁকে গোয়ালতোড় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এক এএসআই ও একজন সিভিক ভলান্টিয়ার সহ ৫পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন বলে খবর। আহত এএসআই-এর নাম তরুণ হাজরা। গোয়ালতোড়ে অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগে বিজেপির পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা কার্যকরী সভাপতি রাজীব কু্ণ্ডু সহ ৩০ জন দলীয় কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

বিজেপির দাবি, গোয়ালতোড়ে পুলিশের লাঠির ঘায়ে তাদের ৪০ জন কর্মী আহত হয়েছে। তার মধ্যে ৫ জন গুরুতর আহত। বিজেপির জেলা সভাপতি শমিত দাসের অভিযোগ করেছেন, “পুলিশ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত-ভাবে আক্রমণ করে। তৃণমূলের ছেলেরা সিভিক ভলান্টিয়ারের উর্দি গায়ে লাঠিচার্জ করেছে।” অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা তৃণমূল নেত্রী উত্তরা সিংহ হাজরা পাল্টা বলেন, “যা হয়েছে ঠিকই হয়েছে।”