গৃহিণীদের রান্না প্রতিযোগিতা ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে

0
523

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ কেউ রান্না করে এনেছে গেঁড়ির ঝোল, কেউ বা বিট গাজরের তরকারি, কেউ বা নানা ধরনের সব্জি দিয়ে খিচুড়ি, কেউ বার বিভিন সব্জি দিয়ে চুনো মাছ। এক পলকে দেখলে মনে হ০বে রকমারি সুস্বাদু রান্নার প্রতিযোগিতা। বিষয়টা প্রতিযোগিতাই, তবে একটু ভিন্ন ধরনের। বাড়িতে শিশুদের কি ধরনের পুষ্টিকর খাওয়ার খাওয়ানো প্রয়োজন সেটা বোঝাতে শিশুর মায়েদের মধ্যে রান্নার প্রতিযোগিতা হয়েছিল। শহরের ১৮নম্বর ওয়ার্ডের সুজাগঞ্জ অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার ছিল মায়েদের রান্ননার প্রতিযোগিতা। ১-৭ সেপ্টেম্বর পুষ্টিসপ্তাহ ছিল। সে সময় অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে অন্য কাজ থাকায় চলতি সপ্তাহে তা পালিত হচ্ছে। অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের কর্মী সিমু ঘোষ বলেন, বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিলে পুষ্টিকর খাবার শিশুদের বিতরন করা হয়, শিশুরা যাতে বাড়িতেও নিয়মিল পুষ্টিকর খাওয়ার খেতে পারে সেজন্যই পুষ্টি সপ্তাহ পালন করে মায়েদের বোঝানো হচ্ছে এবং বিষয়টি আকর্ষনীয় করতে রান্না প্রতিযোগিতা হয়েছে। প্রথম তিনজনকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর সৌমেন খান, সৃজন গোষ্ঠী ক্লাবের পিন্টু মজুমদার, শিক্ষক অরুণ দাস, সহায়িক কাকলি দত্ত প্রমুখ।