শহরে ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বাড়মানিকপুরে রাস্তার আলো দীর্ঘকাল বিকল, ক্ষোভে ফুসছেন এলাকাবাসী, কাউন্সিলর দুষলেন পুরকর্তৃপক্ষকে

0
842

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ দুর্গোৎসব শেষ হল তবু মেদিনীপুর পুরসভার টনক নড়ল না। শহরের ১০নম্বর ওয়ার্ডের বাড়মাণিকপুর এলাকা দীর্ঘদিন অন্ধকারে ডুবে থাকায় চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছেন অজস্র পথচারী ও এলাকার মানুষজন। পাশেই ১৬ নম্বর ওয়ার্দ এলাকায় বেড়বল্লভপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পুরসভা নিয়ন্ত্রিত হাসপাতাল রয়েছে। তাছাড়া হোসনাবাদ হয়ে এই রাস্তা ধরে দিনে রাতে নিত্য অজস্র মানুষ মেদিনীপুর শহরে প্রবেশ করেন। যাতায়াতের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মধ্যেও দীর্ঘকাল যাবৎ বিদ্যুতের খুঁটিতে আলো বিকল হয়ে পড়ে রয়েছে। ১০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত মহাপাত্র এব্যাপারে উদ্যোগী না হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। চরম ক্ষুব্ধ নিত্যযাত্রীরাও। প্রত্যেকেরই অভিযোগ, বহুবার ধরে অসিতবাবুকে বলা হয়েছে। কিন্তু করছি-করব বলে টাল বাহানা করে চলেছেন। সকলেরই প্রশ্ন, যিনি কাউন্সিলর তিনি যদি নীরব হয়ে বসে থাকেন তবে কী করে আলো জ্বলবে? এলাকাবাসী জানান, এমন এক গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা অন্ধকারে ডুবে থাকায় প্রায়শই দূর্ঘটনা ঘটে। বাম্পে গাড়ি হঠাৎ লাফিয়ে ওঠে। তাছাড়া রাস্তার উপরে অনেক কুকুর শুয়ে থাকে। অন্ধকারে দেখা না যাওয়ায় পথচারীরা আতঙ্কে রাস্তা পার হন। যদিও এব্যাপারে কাউন্সিলর অসিত মহাপাত্র জানান, তিনি অসহায়। তিনি জানান এলাকাটি  খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিকল আলোটি ঠিক করার জন্য বারংবার পুরসভার লাইট দফতরে জানিয়েছি। পুর কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কিন্তু পুরসভা থেকে আলোর জন্য কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এর জন্য অসিতবাবু পুরকর্তৃপক্ষের উপরেই দায় চাপিয়ে দিয়েছেন।

এব্যাপারে ১০ নম্বর ওয়ার্ডের দুই তৃণকূল নেতা মলয় রায় ও সঞ্জয় ভৌমিক জানান, আমরাও বহুবার পুরসভায় বলেছি। তা সত্বেও লাইট সারানোর ব্যবস্থা করা হয়নি। এটা দুর্ভাগ্যজনক। স্বভাবতই পুর কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় এলাকার মানুষজন চরম ক্ষুব্ধ। সকলেরই প্রশ্ন, এটাই কী সঠিক পূর-পরিষেবা? এমন গুরুত্বপূর্ণ জায়গাতেও যদি আলো জ্বালানোর ব্যবস্থা করা না হয় তবে কোথায় থাকল পুরসভা বা কাউন্সিলর যথার্থ ভাবমূর্তির গুরুত্ব?