দুই মেদিনীপুরের কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সম্বর্ধনা, সবাইকে সাধুবাদ দিলেন শুভেন্দু

0
1856

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ কন্টাই কো-অপারেটিভ ব্যাংক-এর পক্ষ থেকে দুই মেদিনীপুর জেলার মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় মেধাতালিকায় প্রথম দশে থাকা কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদে৩র উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন পরিবহণ ও পরিবেশ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। 

এদিন ব্যাংকের সভাকক্ষে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় মেধাতালিকায় স্থানাধিকারী প্রথম দশের মধ্যে থাকা ১৬জন কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধিত করা হয়। তাঁদের সকলের হাতে স্মারক ও নানা উপহারসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে ব্যাংকের ভাইস-চেয়ারম্যান চিন্তামণি মণ্ডল, অন্যতম ডিরেক্টর শ্যামাশিস মিশ্র, নন্দকুমারের বিধায়ক সুকুমার দে এবং সহ ব্যাংকের সমস্ত ডিরেক্টর ও পদাধিকারীরা উপস্থিত ছিলেন।
 বক্তব্য রাখতে গিয়ে শুভেন্দুবাবু বলেন, আমরা টানা ৬বছর ধরে ব্যাংকের পক্ষ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় দুই মেদিনীপুর জেলায় মেধাতালিকায় প্রথম দশের মধ্যে থাকা কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা দিয়ে আসছি। এতে সংবর্ধিত হওয়া ছাত্রছাত্রীরা যেমন আরও উৎসাহিত হয়, তেমনি অন্যান্য মেধাবী ছাত্রছাত্রীরাও ভালো ফল করার ক্ষেত্রে উৎসাহ পায়। শুভেন্দুবাবু বলেন, পর পর ৬বছর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শতাংশের বিচারে রাজ্যের মধ্যে সেরা হয়েছে। এবারও তার অন্যথা হয়নি। এর থেকে প্রমাণ হয়, পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শিক্ষাদীক্ষায় কতটা এগিয়ে রয়েছে।
 তিনি বলেন, ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে মেধা তো রয়েছেই। আর ছাত্রছাত্রীদের তৈরি করার পিছনে তাদের অভিভাবক-অভিভাবিকা ও আচার্যদের একটি বিরাট ভূমিকা এবং অবদান রয়েছে। আমরা চাই, এইভাবে মেদিনীপুরের  ছাত্রছাত্রীরা প্রতি বছর রাজ্যের মধ্যে সেরার স্থান দখল করে সকলের মুখ উজ্জ্বল করুক। আমি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিশেষভাবে ধন্যবাদ দেব, তিনি জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর জন্মের ১৫০বছর উপলক্ষে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষার উন্নতির স্বার্থে একটি বিশ্ববিদ্যালয় উপহার দিয়েছেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি তৈরি হওয়ার ফলে বিশেষ করে যাঁরা কলেজে পাশ করে বেরবেন, তাঁদের মাস্টার ডিগ্রি করার ক্ষেত্রে খুবই সুবিধা হবে।
 তিনি আরও বলেন, আমরা নির্বাচিত প্রতিনিধিরা শুধু ব্যাংক বাণিজ্যিক ঩দিকটা দেখব তা নয়, দেশ এবং সমাজের প্রতিও আমাদের একটা দায়বদ্ধতা রয়েছে। সেই দায়বদ্ধতা থেকে আমরা প্রতি বছর দুই মেদিনীপুর জেলায় মেধাতালিকায় প্রথম দশের মধ্যে থাকা কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা দেওয়ার উদ্যোগ নিই। তাদের শুভাশিস দিয়ে বলি, অনেকে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার বা অন্যান্য পেশায় প্রতিষ্ঠিত দিকে হওয়ার জন্য এগচ্ছে। তারা নিশ্চয়ই একদিন স্ব স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত হবে। তাদের প্রতি একটাই কথা, তারা যেন কোনওদিন নিজের জন্মভূমি অর্থাৎ গ্রামটাকে না ভুলে যায়। আমার এটাই তাদের কাছে বলার।
 পরে ব্যাংকের বার্ষিক সাধারণ সভায় যোগ দেন শুভেন্দুবাবু। সেখানে ব্যাংকের সামগ্রিক বিষয় নিয়ে পর্যালোচনা করেন তিনি। চলতি আর্থিক বছরের ব্যাংকিং পরিসংখ্যান তুলে ধরা হয়। চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমানে ব্যাংকের আমানত ১১০০কোটি টাকা  ছুঁয়েছে। ২০১৮সালে এনপিএর (নন পারফর্মিং অ্যাসেট) পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫.৮৬। যা ৭৩ বছরের এই ব্যাংকের ইতিহাসে রেকর্ড। তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ব্যাংকের প্রধান শাখা সহ ১৬টি শাখা রয়েছে। ব্যাংকের পক্ষ থেকে হাওড়া জেলার আন্দুল ও উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে নতুন শাখা খোলা হবে। বর্তমানে সেই প্রক্রিয়াই  চলছে। এদিনের এই বার্ষিক সাধারণ সভায় বিভিন্ন এলাকা থেকে সহস্রাধিক ডেলিগেট এই সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন।