লোকসভা ভোটের পর হতোদ্যম কর্মীদের চাঙ্গা করতে মমতার চিঠি

0
628

পত্রিকা প্রতিনিধিঃ লোকসভায় খারাপ ফলের পর বিধানসভায় কামব্যাক করতে চিঠি কৌশল অবলম্বন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভা ভোটের আগেও তিনি এমন কৌশল নিয়েছিলেন। সরকারি প্রকল্পের উপভোক্তা থেকে শুরু করে ছাত্রছাত্রীর অভিভাবকদের চিঠি লিখে ধন্যবাদ জানিয়ে ছিলেন। এবার চিঠি লিখলেন নিজের দলের কর্মীদের। মমতার এই উদ্যোগ প্রথম প্রতিফলিত হচ্ছে পশ্চিম মেদিনীপুরে। জেলার ১৫টি বিধানসভা আসনের মধ্যে সাতটিতে পিছিয়ে রয়েছে তৃণমূল। তার উপর প্রতিদিনই তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদান চলছে। এর ফলে তৃণমূল কর্মীদের মনোবল ভেঙে পড়েছে। তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটিতেও বিজেপি প্রভাব বিস্তার করেছে দ্রুত। এই পরিস্থিতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কর্মীদের প্রতি বার্তা দিলেন নিজে হাতে চিঠি লিখে। লোকসভা ভোটে হারের পর মুষড়ে পড়া কর্মীদের তিনি লড়াইয়ের মনোবল জোগালেন। চিঠি লিখে কর্মীদের সে কথা জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই চিঠিতে রবীন্দ্রনাথ, বিদ্যাসাগর, নজরুল, রামমোহন, রামকৃষ্ণ, বিবেকানন্দের বাণী উল্লেখ করে মমতা লিখেছেন, ‘পরাজয়ের অর্থ মৃত্যু নয়, বরং আরও উৎসাহ। পরাজয় মানে সমস্ত শক্তিকে একত্রিত করে নতুন সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়া। বাংলাকে এত সহজে হারানো যায় না। ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যা মহাত্মা গান্ধীর অহিংসা, বিরসা মুন্ডার বিক্রম, আম্বেদকরের অনুশাসনের কথা উল্লেখ করেছেন। চিঠিতে তিনি আবুল কালাম আজাদ, ক্ষুদিরাম প্রফুল্ল চাকি, ভগত সিংহদের লড়াইয়ের কথাও উল্লেখ করেছেন। এই সব মণীষীদের সংগ্রামী কথা বলে তিনি কর্মীদের উজ্জীবিত করতে চেয়েছেন। দলের কর্মীদের উদ্দেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও লেখেন, ‘আমি অন্তর থেকে বিশ্বাস করি, চাতুরি দিয়ে বেশিদিন জেতা যায় না। শাসন কায়েম করা যায় না।’